ভারত ধর্মনিরপেক্ষ দেশ

Image result for images of temple church and mosque in india

ভারত ধর্মনিরপেক্ষ দেশ, কারণ সেখানে হিন্দুরা সংখ্যাগুরু। পশ্চিমা দেশগুলো ধর্মনিরপেক্ষ, কারণ সেখানে খৃস্টানরা সংখ্যাগুরু। জাপান অন্যান্য দেশগুলো গণতান্ত্রিক, কারণ সেখানে বৌদ্ধরা সংখ্যাগুরু। মুসলমানরা সংখ্যাগুরু এবং দেশটি ধর্মনিরপেক্ষ, এমন একটি দেশও নেই, এর কারণ কি? মুসলিম সংখ্যাগুরু প্রতিটি দেশ হয় মুসলিম রাষ্ট্র নয়তো রাষ্ট্রধর্ম ইসলাম? এইসব দেশের মধ্যে বাংলাদেশের অবস্থান ভালো, কিন্তু কতটা? সংখ্যালঘুরা কি টিকতে পারছে? পারছে না, কারণ ভারত অসহিষ্ণু, বাংলাদেশ মুসলিম দেশগুলো সহিষ্ণু! ১৯৪৭ সালে ভারতে মুসলমান ছিলো ৩কোটি, এখন ১৫কোটি। তখন ইউসুফ খানদিলীপ কুমারনাম নিয়ে অভিনয় করেছেন, এখনখানরাঅভিনয় জগতে রাজত্ব করছেন, কারণ ভারত অসহিষ্ণু। বাংলাদেশের সিনেমা পাড়ায় প্রতিটি হিন্দু মেয়েকে মুসলমান হতে হচ্ছে, কারণ বাংলাদেশ সহিষ্ণু! পাকিস্তান বা অন্যান্য মুসলিম দেশের কথাবলিয়া লজ্জা দিতে চাইনা  জননেত্রী শেখ হাসিনা একবার বলেছেন, মুসলমানরাই শুধু শরণার্থী কেন? রাষ্ট্রসংঘের হিসাবে পৃথিবীর প্রায় ৮৫% শরণার্থী মুসলমান। অথচ মুসলমানদের ৫৭টি দেশ আছে, আছে প্রচুর জায়গা, অর্থবিত্ত। এই মুসলিম শরণার্থীরা মুসলিম দেশগুলোতে থাকতে চায়না, ওঁরা জায়গাও দেয়না, এঁরা দলবেঁধে পশ্চিমা দেশে থাকতে চায়, কারণ কি? মুসলমানরা প্রায় সবাই ভারতসহ অন্য ধর্মীয় সংখ্যাগুরু দেশগুলোকেগণতান্ত্রিক ধর্মনিরপেক্ষদেখতে চায়, কিন্তু নিজেরা সংখ্যাগরিষ্ঠ হলে দেশটিকে মুসলিম দেশ বানিয়ে ফেলে? ভারত পশ্চিমা দেশে প্রায় সকল মুসলমান এক একজন বিশাল গণতন্ত্রী, ধর্মনিরপেক্ষ, এবং সমঅধিকারের প্রবক্তা, এই মানুষগুলো নিজের ফেলে আসা দেশে কট্টর মুসলমান, অন্যদের অধিকারের থোড়াই তোয়াক্কা করেন? ভারতে সিএএ নিয়ে এবার মুসলমানরা আন্দোলন করেছেন, হিন্দুরা ব্যাপকভাবে তাদের সাথে রাস্তায় নেমে এসেছেন। বাংলাদেশে হিন্দুর ওপর এত অত্যাচার, কোন মুসলমান রাস্তায় নামার কথা ভাবতেই পারেননা?    বিশ্বের প্রায় সকল মুসলিম দেশে অন্য ধর্মীয় মানুষজন থাকতে পারেনা, বা তাঁরা থাকতে দেয়না। পাকিস্তানকে হিন্দু শূন্য করা বা বাংলাদেশ থেকে সংখ্যালঘুদের বিতাড়িত করার তরিকা একই! আর শুধু অন্য ধর্মীয় কেন, নিজধর্মের অন্য গোত্রের মানুষেরও ঠাঁই মেলেনা সেখানে। সৌদি আরবে ১০০% সুন্নি, শিয়াদের জায়গা নেই? ইরানে সুন্নিরা থাকতে পারেনা। পাকিস্তানে আহমদিয়ারামুসলমান শিয়া ব্যাতিত ইরানের অন্য মুসলিম সম্প্রদায়ের অনেকে ভারতে আশ্রিত। ভারত অসহিষ্ণু! ভারতে ইহুদীরা সুখেশান্তিতে বসবাস করছেন, কারণ ভারত অসহিষ্ণু, বাংলাদেশ, পাকিস্তান বা ইরান, সৌদি আরবে ইহুদি বসবাস করা তো দূরের কথা, ইহুদি পেলে সবাই বেহেস্তে যাবার জন্যে রাস্তায় নেমে পড়বে, কারণ তাঁরা সহিষ্ণুসুন্নি সৌদি আরব শিয়া ইয়েমেনের ওপর নির্বিচারে বোমা মারছে। এই তো সেদিন, শুক্রবার জুম্মার দিন শিয়া মসজিদে বোমা মেরে সুন্নি সৌদি আরব বহু মানুষ হতাহত করে। মুসলমান এক গ্রূপ অন্য গ্রূপের মসজিদে আক্রমন নুতন কোন ঘটনা নয়, ইরাকইরান অন্যত্র ধরনের অসংখ্য ঘটনা ঘটছেই! কাজেই পাকিস্তান বা বাংলাদেশে যখন মন্দির বা মুর্ক্তি ভাঙ্গে এতে অবাক হবার কিছু নেই? মুসলমান যদি  মসজিদ ভাঙ্গতে পারে, তবে মন্দির না ভাঙ্গার কোন কারণ নেই? সুতরাং, বাংলাদেশে মন্দির বা মুর্ক্তি ভাঙ্গা চলছে বা চলবে, ৪৮ বছরে কোন বিচার হয়নি, হবার কোন কারণ নেই, কারণ মুর্ক্তি ভাঙ্গলে ছোয়াব বা পুন্য মিলে!  ১৯৪৭ সালে আহমদিয়া সম্প্রদায় বলেছেন, হিন্দুদের সাথে থাকা যাবেনা, আমরা মুসলমান, পাকিস্তান চাই। পাকিস্তানে আহমদিয়া এখন মুসলিম। বাংলাদেশে তাদেরঅমুসলিমঘোষণার দাবি জোরদার হচ্ছে, তাদের ওপর আক্রমণ হচ্ছে। হেফাজতে ইসলামের আমীর শফি হুজুর বলেছেন, ‘আহমদিয়াদের অমুসলিম ঘোষণা না করলে তার সংগঠন সরকারের সাথে থাকবে না! পাকিস্তানের আহমদিয়ারা এখন ভারতের নাগরিকত্ব চায়! বাংলাদেশের আহমদিয়ারা কি করবেন? হেফাজত যা চায় তা পায়, এবার একুশে পদক পেয়েছে, সামনে তাদের দাবি পূরণ হলে আহমদিয়ারা মুসলিম হয়ে যাবেন! তখন কি হবে? শিতাংশু গুহ,, নিউইয়র্ক।। (মতামত লেখকের নিজস্ব—সমপাদক with courtesy to Hindustan Times for the image)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *