দুর্বল বাইডেনকে দিয়ে কি ট্রাম্পকে হারানো সম্ভব ?

৩১শে আগষ্ট ২০২০, নিউইয়র্ক।।

রিপাবলিকান এবং ডেমক্রেট কনভেনশন শেষ হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনী বাতাস এখন তুঙ্গে থাকার কথা, কিন্ত এখনো তা নয়। কারণ কোভিড-১৯। সেপ্টেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহ বা ‘লেবার-ডে’ উইকএন্ডের পর হয়তো ঝড় বইবে। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প করোনা তোয়াক্কা না করে বড়বড় সমাবেশ করছেন। প্রতিদ্ধন্ধী জো বাইডেন নির্বাচনী মাঠে নেই? ডেমক্রেট নেতা-কর্মীরা এতে উদ্বিগ্ন। বাইডেন ক্যাম্পেইন তাই ঘোষণা দিয়েছেন, ‘লেবার-ডে’ সপ্তাহান্তের পর তাঁরা মাঠে নামছেন। ট্রাম্প আক্রমণাত্মক খেলছেন। বাইডেন এখনো ডিফেন্সিভ।

ডেমক্রেট সম্মেলন সাদামাটা ছিলো, তাই রিপাবলিকানরা বলেছিলেন যে, তারা কনভেনশন কাকে বলে তা দেখাবেন, কনভেনশনের সমাপ্তি দিবসে, অর্থাৎ ট্রাম্পের মনোনয়ন গ্রহণ ভাষণের দিন তাঁরা তা দেখিয়েছেন। হোয়াইট হাউসের বিশাল মিলনায়তনে হাজারো মার্কিন পতাকা ঝলমলে ষ্টেজে ট্রাম্পের ভাষণের সময় হলভর্তি গন্যমান্য অতিথি উপস্থিত ছিলেন। মুহুর্মুহু করতালিতে বারবার হলঘর উচ্ছলিত হয়। ডেমোক্রেটরা এজন্যে বলেছেন, রিপাবলিকান কনভেনশন দেখে মনে হয়, দেশে করোনা নাই? বাইডেনের ভাষণের সময় কেউ উপস্থিত ছিলেন না, সেরকম ব্যবস্থা নেয়া হয়নি।

ট্রাম্প তার ভাষণে বলেছেন, মানবতার ইতিহাসে আমেরিকা গ্রেটেষ্ট কান্ট্রি। আমরা ভীতুর জাতি নই, বরং দুর্বার সাহসী। বিশ্বে কেউ আমাদের সমকক্ষ নয়। তিনি বলেন, জয়ী হলে আগামী চার বছরে আমেরিকাকে আরো নিরাপদ, শক্তিশালী দেশ গড়ে তুলবো এবং গর্বিত জাতি হিসাবে প্রতিষ্ঠিত করবো। ট্রাম্প আরো বলেছেন যে, নির্বাচিত হলে তিনি চীনের পেছন ছাড়বেন না?  ডেমক্রেটরা চীনের ব্যাপারে সোচ্চার নন, যদিও আমেরিকানরা কোবিড-১৯’র জন্যে চীনকে দায়ী করছে। বাইডেন ডেমক্রেট সম্মেলনে বলেছিলেন, জয়ী হলে আমি প্রেসিডেন্ট  হিসাবে  আমেরিকা, আমেরিকান জনগণ ও জাতিকে দৃশ্যমান এবং অদৃশ্য হুমকী থেকে রক্ষা করবো।  

রিপাবলিকান সম্মেলনে ট্রাম্প পত্নী মেলোনিয়া ট্রাম্প বলেছেন, আমি আমার স্বামীকে  চিনি, তিনি আমেরিকাকে ভালোবাসেন। তিনি স্বামীর জন্যে আরো চার বছর সময় চান এবং দেশরক্ষার দায়িত্ব দেয়ার আহবান জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *