তুমি শব্দটি মধুর।। তুই-আপনি নিয়ে টানাটানির দরকার কি? 

শিতাংশু গুহ, নিউইয়র্ক।। 

ইউ (You)’র বাংলা কি? তুমি। তুই বা আপনি নয় কেন? অথবা তুই বা আপনি’র ইংরেজী কি? ইংরেজী ভাষায় ‘ইউ’ সর্বজনীন এবং এর ব্যবহার বড়, ছোট, উঁচু, নীচু, ভন্ড, সাঁধু সবার জন্যে প্রযোজ্য। বাংলায় তুই, তুমি, আপনি এক করে ফেললে কেমন হয়? তুই, আপনি বাদ দিয়ে শুধু ‘তুমি’ ব্যবহার করা যায়না? ক্ষতি কি? শুরু হলে একসময় চালু হয়ে যেতেও পারে! 

আপনি সম্মানসূচক সম্বোধন। তুমি কাছের মানুষের, এবং ভালোবাসার। ছেলেবেলায় পড়েছিলাম, ‘তুই’ ইতর অর্থে ব্যবহৃত হয়? এখানেও সমস্যা, বন্ধুর সাথে বন্ধু’র ঘনিষ্ঠতায় ‘তুই’ ব্যাপকভাবে ব্যবহৃত হয়; এখানে ‘ইতর’ আসে কোত্থেকে? তুই, তুচ্ছ-তাচ্ছিল্য হিসাবে ব্যবহৃত হয়, এটি ঠিক। বাদ দেয়া যায়না? কাউকে তুচ্ছ করার দরকার কি? সবার জন্যে সমান অথচ সম্মানজনক সম্ভোধন হলে ক্ষতি কি?

তুই, তোর্; তুমি, তোমার; আপনি, আপনার- এত ঝামেলা। বাংলা ভাষা আদতে কঠিন। এটি সহজ করার উদ্যোগ নেয়া উচিত। হয়তো হৈচৈ হবে, তবে ব্যবহারিক অর্থে সুবিধাজনক হলে একসময় তা গৃহীত এবং প্রচলিত হয়ে যেতে পারে। তুই বা আপনি একবারে নির্বাসন দেয়ার কথা বলা হচ্ছেনা, প্রচলন বা ব্যবহার কমানো যায় কিনা সেটি বিবেচনা করা যেতে পারে। 

বঙ্গভাণ্ডারে এমন অনেক শব্দ আছে, যার ব্যবহার নেই। তুই বা আপনি সেভাবে থাকলে সমস্যা কি? মনুষ্য জীবন প্রতিনিয়ত ‘ফাষ্ট’ হচ্ছে, ভাষার ক্ষেত্রে তেমনি ‘গতি’ আনলে ভালো হবারই কথা। বলছিলাম, ‘তুমি’ শব্দের ব্যবহার বাড়ুক, ‘তুই’-’আপনি’ সাইডলাইনে থাকুক। আমি ভাষাবিদ নই; কবি-সাহিত্যিকও নই; আমি বাঙ্গালী, এবং বাংলা ভাষার সার্বজনীনতা চাইতেই পারি। 

ভাষা হবে সাম্প্রদায়িকতা মুক্ত। ইংরেজী ভাষাকে ধর্মভিত্তিক সাম্প্রদায়িক-করণ একপ্রকার অসম্ভব, হয়তো চেষ্টাও হয়নি। বাংলাকে সেটা সম্ভব হয়েছে। যেমন জল-পানি; মা-আম্মা; মাসী-খালা; দিদি-আপা; জামাইবাবু-দুলাভাই ইত্যাদি। আরো আছে, এগুলো হয়েছে ধর্মভিত্তিক। এমনকি ‘পহেলা বৈশাখ’ পর্যন্ত একজন সশস্ত্র কবি এক কলমের খোঁচায় সাম্প্রদায়িক করে দিয়েছেন। 

আবার ণত্ববিধান-সত্ববিধান কি এখনো প্রয়োজন আছে? এরসাথে সাধারণ বাঙ্গালীর কোন সম্পর্ক নেই। মধ্যন্য’র বদলে দন্তন্য লিখলে কি এমন ক্ষতি? অথবা তালিবশ্য’র বদলে দন্তস্য? কবি-সাহিত্যিকরা রেগে যাবেন বটে; আমি বলছিলাম সাধারণ মানুষের কথা। আমার নামটি ‘স’-দিয়ে; আমি লিখি ‘শ’-দিয়ে। কি এমন ক্ষতি? রস্বীকার-দীর্ঘিকার নিয়েও কথা আছে। 

বলছিলাম, ভাষাকে সহজ করা ভালো। রাতারাতি সবাই মেনে নেবেন তা হয়তো নয়, চেষ্টা করতে দোষ কি? ‘তুমি’ শব্দটি মধুর। তুই-আপনি নিয়ে টানাটানির দরকার কি? কথ্য ভাষা হিসাবে বাংলা সম্ভবত: ষষ্ঠ অবস্থানে আছে। প্রায় ৩০কোটি মানুষ বাংলায় কথা বলে। ভাষাটি যথেষ্ট সমবৃদ্ধ। কে যেন বলেছেন, ‘কাউকে তুমি বললে তিনি যা পান; আপনি বললে এরচেয়ে অনেক বেশি হারান’। সুতারং, তুমিই যথেষ্ট নয়কি?

Leave a Reply

Your email address will not be published.