ঢাকার উপজেলায় হিন্দু পরিবারের উপর অত্যাচার

মোঃরাজিব তালুকদার 

রাজধানী ঢাকার দোহার উপজেলার পূর্ব লটাখোলা সাকিনস্ত হিন্দু পরিবারের তপন কর্মকারকে কুপিয়ে হত্যা ও হিন্দু মহিলাকে ধর্ষণের অভিযোগে পুলিশ  মোঃরফিক তালুকদার  নামক এক জনকে গ্রেফতার করেছে। বাংলাদেশ মাইনরিটি ওয়াচ ঘটনা তদন্ত করছেন ১৮ জুলাই ,২০২০ সকাল ১২ টায় । 

ঢাকা জেলার দোহার উপজেলার লটাখোলা এলাকায়  গত ১৫ জুলাই ২০২০ রাত আনুমানিক ১১ ঘটিকার সময়  অচেনা ৫~৬ জন কালো রেইনকোট ও মুখোশ পড়ে অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে কৃষ্ণ কর্মকার  এর বাড়িতে আসে।

কৃষ্ণ কর্মকার ও তপন কর্মকার দুই ভাই উভয় পিতা মৃত গোপাল কর্মকার। কৃষ্ণ কর্মকার এর অভিযোগ বয়ান সূত্রে জানা যায় “অচেনা সন্ত্রাসীরা আমার বাড়িতে প্রবেশ করে। আমার ভাই তপন কর্মকার কে ধারালো চাপাতি দিয়ে এলোপাতাড়ি ভাবে কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে এবং পরে তপন কুমার মারা যায় ।

তিনি বলেন “আমার ভাইকে এলোপাতাড়ি ভাবে যখন কোপাতে থাকে আমার স্ত্রী মনি কর্মকার (৩০) তখন বাধা দিতে গেলে আমার স্ত্রীর কে বেঁধে নিয়ে যায় অচেনা স্তানে অপহরণকারীরা। আমরা কোন প্রকারে ঘর থেকে বের হওয়ার সুযোগ নেই আমাদের ঘরের ছিটকানি দিয়ে আমাদেরকে আটকে রাখে সন্ত্রাসীরা। পরবর্তীতে আমরা বের হয়ে আমার ভাইকে দোহার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায় এবং হাসপাতাল  আমার ভাই তপন কর্মকার মৃত্যুবরণ করে। পরের দিন ১৬ জুলাই ২০২০ সকাল আনুমানিক ০৭ ঘটিকার সময় আমার এলাকার আজিজ এর বাড়ির পিছনের পুকুরে ভিতরে আমার স্ত্রীর ডাক চিৎকারে এলাকার লোক দেখতে পেয়ে তাকে উদ্ধার করে।

উল্লেখ্য বিষয়ে আমি বাদী হয়ে দোহার থানায় একটি অজ্ঞাত নামা এ মামলা দায়ের করি। মামলা নং ১১/৮১ তারিখ ১৫ জুলাই,২০২০ , ধারা ৩০২/৩৪ সঙ্গে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনের ৭ ধারা। এ বিষয়ে বাংলাদেশ মাইনরিটি ওয়াচের সভাপতি এডভোকেট রবীন্দ্র ঘোষ সরোজমিনে ১৮ জুলাই পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্তল পরিদর্শন করে বিষয়টি তদন্ত করেন , উদ্ধারকৃত হিন্দু মহিলা  ও হিন্দু পরিবারদের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেন , আইনগত সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দেন । বাংলাদেশ মাইনরিটি ওয়াচের সভাপতি এডভোকেট রবীন্দ্র ঘোষ , মানবাধিকার কর্মী শ্রী তপন কুমার পাণ্ডে ,রাজিব তালুকদার, দশরথ সরকার  সরেমমিনে ঘটনাস্তল যাবার পরে ডি , বি , পুলিশ  মোঃরফিক তালুকদার  নামক এক জন অপরাধীকে কে আটক করে এবং তাকে গ্রেফতার করে  আদালতে ১০ দিনের রিমান্ডে আনা হয়েছে । 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *