ফেসবুক ফ্রেন্ডস ক্লাবের মিলন বৈঠকে সামাজিক ও পরিবেশগত দায়বদ্ধতার অঙ্গীকার

অরুণ কুমার

সামাজিক গণমাধ্যমের সঙ্গে যুক্ত থেকেও অনেক কিছু করা যেতে পারে আর এর সাথে যুক্ত নানান পেশার মানুষেরা আগামী দিনে দেশ সমাজ ও পরিবেশ কে আরো যাতে ভালো রাখা যায় নতুন প্রজন্মকে অনুপ্রাণিত করার পাশাপাশি দিশা দেখানো যায় এই ভাবনা নিয়ে অঙ্গীকারবদ্ধ হলেন ফেসবুক ফ্রেন্ডস ক্লাবের সঙ্গে যুক্ত সদস্যবৃন্দ। যার সঙ্গে রয়েছেন ডাক্তার, শিক্ষক, অবসরপ্রাপ্ত কর্মী শিল্প , বিনোদন ও সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে যুক্ত বিভিন্ন ব্যক্তি। রবিবার হাওড়ার মৌরিগ্রামের ইন্ডিয়ান রিসার্চ ইনস্টিটিউট ফর ইন্টিগ্রেটেড মেডিসিনের হলঘরে সমবেত হয়েছিলেন কলকাতা বর্ধমান দুর্গাপুর শিলিগুড়ি শহরের বেশ কিছু ব্যক্তি যারা এই ফেসবুক ফ্রেন্ডস গ্রুপের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন। মার্কিন মুলুকে বর্তমানে বসবাস করলেও আদিবাড়ি দুর্গাপুরের প্রবীণ সাংবাদিক ও সমাজকর্মী সুকুমার রায় মূলত এই প্রচেষ্টায় দীর্ঘ পাঁচ বছরের প্রচেষ্টায় গড়ে ওঠা ফেসবুক ফ্রেন্ডস ক্লাব কে এগিয়ে নিয়ে চলেছেন। যার সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন নানান পেশার মানুষ সমাজ পরিবেশগত ক্ষেত্রে দায়বদ্ধতার অঙ্গীকার নিয়ে কিছু কাজ করা যায় কিনা সে বিষয়ে দীর্ঘক্ষন আলোচনার পর এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়। এ দিনের মিলন বৈঠকে সর্বসম্মতিক্রমে যুগ্ম-আহ্বায়ক হয়েছেন যথাক্রমে প্রবীণ সাংবাদিক সুকুমার রায় এবং বিনোদন শিল্পের সঙ্গে যুক্ত রাখি রায় । উপদেষ্টামন্ডলীতে আছেন ডা: দেবাশীষ বক্সী এবং ডা: কে বি চৌধুরী। কোষাধ্যক্ষ
হয়েছেন ডঃ সুজাতা পাল। মৌরিগ্রাম ফেসবুক ফ্রেন্ডস ক্লাবের সদস্যরা একত্রে মিলিত হয়ে একে অপরের সাথে পরিচিত হন প্রায় তিন বছর পরবর্তী সময়ে একত্র হয়ে স্বাভাবিকভাবে সদস্যরা খুব খুশি।

অন্যতম আহবায়ক সুকুমার রায় জানিয়েছেন, আমাদের ফেসবুক গ্রুপের মূল উদ্দেশ্য হলো সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে সামাজিক ও পরিবেশগত দায়বদ্ধতা পালন করা ও সচেতনতা বৃদ্ধির মধ্য দিয়ে জৈব চাষ জৈব খাদ্যের ব্যবহার সম্পর্কে মানুষের মধ্যে আগ্রহ জাগিয়ে তোলা সেইসঙ্গে বিকল্প চিকিৎসা পদ্ধতি যেমন আকুপাংচার ন্যাচারোপ্যাথি যোগা সুষম খাদ্য বিশেষ করে জৈব খাদ্যের ব্যবহার বিষয়ে প্রচার ও প্রসার করা সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে। জৈব উৎপাদিত খাদ্য সামগ্রী মহানগরসহ বিভিন্ন জায়গায় পাওয়া যায় সেই উদ্যোগ গ্রহণ করা এবং এর ব্যবহার সম্পর্কে আরো মানুষকে উদ্বুদ্ধ করা যাতে শারীরিক ও মানসিকভাবে সুস্থ থাকা যায় অন্যদিকে পরিবেশকে ভালো রাখতে গাছ লাগানো ও তার সংরক্ষণ এর প্রতিও যত্নবান হওয়া এসব বিষয় নিয়ে আগামী দিনের কাজ করার করবে ফেসবুক ফ্রেন্ডস ক্লাব বলে জানিয়েছেন অন্যতম আহ্বায়ক সুকুমার রায়। মিলন বৈঠকে দুপুরের আহার ও চা পান পর্বের পর সহযোগী আয়োজক সংস্থা ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট ইন্টিগ্রেটেড মেডিসিনের কর্মকাণ্ডের নানা দিক তুলে ধরেন সংস্থার ডিরেক্টর ডঃ দেবাশীষ বক্সী, ডক্টর সুজাতা পাল সহ মায়া দাস প্রমূখ। এদিনের মিলন বৈঠকে শ্রীমতি নমিতা রায় ও পত্রলিকা ঘোষ আবৃত্তি পাঠ করে শোনান। মৌরীগ্রামে আয়োজিত ফেসবুক ফ্রেন্ডস ক্লাবের বৈঠকে সকলের উপস্থিতির মধ্য দিয়ে এক অন্য মাত্রায় এনে দিয়েছিল।


One thought on “ফেসবুক ফ্রেন্ডস ক্লাবের মিলন বৈঠকে সামাজিক ও পরিবেশগত দায়বদ্ধতার অঙ্গীকার

Leave a Reply

Your email address will not be published.